জাতীয়

কোরআন শিক্ষার আসর থেকে ২০ মহিলাকে গ্রেফতারের নিন্দা জামায়াতের

কুষ্টিয়ায় কোরআন শিক্ষার অনুষ্ঠান থেকে ২০জন মহিলাকে ও কুড়িগ্রাম থেকে ৬ জন ছাত্রকে পুলিশ অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারী জেনারেল ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার।

বুধবার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘৪ মার্চ বুধবার দুপুরে কুষ্টিয়া শহরের একটি বাড়ীতে মহিলাদের কোরআন শিক্ষার অনুষ্ঠান চলছিল। সেখান থেকে পুলিশ ২০ জন মহিলাকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। অপর দিকে কুড়িগ্রামের একটি আবাসিক ছাত্রবাস থেকে পুলিশ ৬জন ছাত্রকে গ্রেফতার করে। ছাত্রাবাসে হানা দিয়ে আসবাব পত্র ভাংচুর করে এবং বই-পুস্তক নিয়ে যায়। রাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দায়িত্ব হলো নাগরিকদের জান-মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। পুলিশ তা না করে কোরআনের আলোচনা সভা থেকে ২০ জন মহিলাকে গ্রেফতার ও কুড়িগ্রাম থেকে ৬জন ছাত্রকে আটক করে তাদের ধর্মীয় ও নাগরিক অধিকার ক্ষুণ্ন করেছে।

দেশে যখন নৈতিকতার বিপর্যয় চলছে; সরকার দলীয় নেতা-নেত্রীগণ অন্যায় ও অসৎ কর্মকান্ডের সাথে নিয়োজিত, ঠিক সেই মুহূর্তে নৈতিক চরিত্র গঠনের উদ্দেশ্যে কোরআনের শিক্ষায় অংশগ্রহণকারী মহিলাদেরকে গ্রেফতার করে সরকার সৎ কাজের উৎখাত ও অসৎ কাজের প্রতিষ্ঠার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।

কুরআনের শিক্ষার অনুষ্ঠান থেকে যাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে তারা দেশের আইনানুগত নাগরিক ও পর্দানশীন মহিলা। কোথাও কোরআনের কোনো অনুষ্ঠান হলেই সেখান থেকে গ্রেফতার করে মিথ্যা মামলায় জড়ানো সরকারের দুরারোগ্য ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে।

আমি অবিলম্বে কুষ্টিয়া থেকে গ্রেফতারকৃত মহিলাদের ও কুড়িগ্রাম থেকে আটক ছাত্রদের নি:শর্ত মুক্তি দাবী করছি।

Leave a Comment